১৫ এপ্রিল, ২০২৪

কম বয়সে চুল পাকার সমাধান টানুন প্রাকৃতিক উপায়েই


কম বয়সে চুল পাকার সমস্যায় অনেকের রাতের ঘুম হারাম হয়ে যায়। বয়সের আগেই চুলে পাক ধরা নিয়ে অস্থিরতা ভর করে। চুল পেকে যাওয়া মানুষের জীবনের একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। বয়স হলেই চুল পাকে এমন নয়।

কম বয়সেও অনেকের চুলে পাক ধরে। প্রাকৃতিক উপায়ে পাওয়া যায় চুল পাকার সমাধান। পরামর্শ দিয়েছেন বিন্দিয়া বিউটি কেয়ারের রূপ বিশেষজ্ঞ শারমিন কচি, লিখেছেন মোনালিসা মেহরিন।


চুল পাকার কারণ 
চুল পাকার পেছনে নানা কারণ থাকে।

সাধারণত ৩০ বছর বয়সের পর থেকে এই সমস্যা শুরু হয়। এই বয়সের আগে চুল পাকলে তাকে অকালপক্ব চুল বলা হয়। আমাদের শরীরের ত্বকের রং নির্ধারক পিগমেন্ট সেল থেকে মেলানিন নামক একধরনের রঞ্জক কণিকা উৎপাদিত হয়। এই মেলানিনের কারণেই চুলের রং কালো হয়।
চুল যেখান থেকে গজায় ত্বকের সেই গোড়ার জায়গার মেলানিন উৎপাদনক্ষমতার ওপর চুলের রং নির্ধারিত হয়ে থাকে। শরীরে যখন মেলানিন উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়, তখনই চুল সাদা হয়ে যায়। চুল পাকার পেছনের প্রধান কারণ এটাই। এ ছাড়া জিনগত কারণেও অনেকের দ্রুত চুলে পাক ধরতে পারে। এর পাশাপাশি অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন, অপরিমিত খাদ্যাভ্যাস, ভিটামিনের অভাব, চুলের যত্নে অবহেলা, অতিরিক্ত মানসিক চাপ, অত্যধিক ধূমপানসহ বিভিন্ন কারণে অল্প বয়সে চুল পাকতে পারে।

নারকেল তেল
প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে মাথায় চুলের গোড়ায় নারকেল তেল ম্যাসাজ করুন। সকালে ঘুম থেকে জেগে উঠে স্বাভাবিকভাবে ধুয়ে ফেলুন। অল্প দিনেই চুল পাকার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। 

পেঁয়াজ বাটা
চুল অকালে পেকে যাওয়া ঠেকাতে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে পেঁয়াজ বাটা। প্রতিদিন নিয়মিত পেঁয়াজ বাটা চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। চুল পাকার সমস্যা অল্প দিনেই কমে আসবে। 

আমলকী
আমলকীর তেল চুলের মেলানিন প্রবাহ ঠিক রাখতে সহায়তা করে। ফলে চুল হবে কালো। এ ছাড়া আমলকীর গুঁড়া ও লেবুর রসের মিশ্রণ চুলের গোড়ায় মালিশ করুন ২০ মিনিট। এরপর চুল ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে পাকা চুলের সমস্যায় উপকার পাবেন।

মেহেদি
চুলের সুরক্ষায় মেহেদির ব্যবহার বেশ প্রাচীন। চুল সাদা হয়ে যাওয়া রোধে মেহেদিপাতার বাটার সঙ্গে শর্ষের তেল মিশিয়ে চুলে মাখলে তা কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

গাজর
গাজরে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘এ’, ‘কে’ ও ‘বি৬’, পটাসিয়াম, বিটা ক্যারোটিন, যা চুলের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে বেশ কার্যকর। প্রতিদিন অর্ধেক গ্লাস পরিমাণ গাজরের জুস খেলে অকালে চুল পাকার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

ছোলা
ছোলায় আছে বি১২ ও ফলিক এসিড। সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে ছোলা খেলে স্বাস্থ্য যেমন ভালো থাকবে, পাশাপাশি চুল হবে কালো।

author

নিউজ ডেস্ক (৪৮)